Reading Time: 3 minutes

ফুলের সৌরভ আর তার সৌন্দর্যে বুদ হয়ে থাকা যায় চিরকাল। ফুলের এই সজীব সরল সৌন্দর্য শুধু নজরই কাড়ে না বরং মনে রেখে যায় মিষ্টি এক অনুভূতি। ফুলের রয়েছে অনেক ব্যবহার হোক তা উপহার দেয়া কিংবা ঘর সজ্জা। কিছু দিন আগেই গেল ঈদুল ফিতর, সামনে ঈদুল আযহা। নিশ্চয়ই ঘর সাজানোর কথা ভাবছেন? ঘর সাজানোর জন্য ফুলের জুড়ি নেই। সারাবছর এ শহরের ফুলের দোকানে দেখা যায় বাহারি ফুল। কিন্তু, বসন্তের ফুলগুলো যেন অন্যরকম! বসন্তের সময়গুলোতে রঙ বেরঙের ফুলে ছেয়ে থাকে একেকটি গাছ। কিন্তু, শুধু বছরের ঐ সময়টাতেই এই ফুলগুলোর দেখা আপনি পাবেন। এই ফুলের ভূমিকা সত্যি বলতে আমাদের জীবনে অনেক! ঘরের পরিবেশ বদলে ফেলা থেকে শুরু করে বিষণ্ণ মন, দুটোই হুট করে বদলে ফেলতে পারে, এই সুন্দর ফুলগুলো! কিন্তু, যেকোন মৌসুমে, যেকোন সময়ে, যে কোন অনুষ্ঠানে কিংবা কারও মন ভালো করতে, এই ফুলগুলো কোথায় মিলবে তা কিন্তু জানা জরুরী! চলুন তাহলে, জেনে নেই ঢাকার  মধ্যে কোথায় কোথায় আছে ফুলের দোকান!

শাহবাগ 

শাহবাগ ফুলের দোকান
বাহারি ফুলের সমাহার

ঢাকার অন্যতম প্রাণকেন্দ্র শাহবাগ এলাকাটি পুরানো ঢাকা ও নতুন ঢাকার মধ্যে অবস্থিত। ১৭শ শতকে মোঘল শাসনামলে এই এলাকাটির পত্তন হয়, যখন পুরানো ঢাকা ছিল মসলিন বাণিজ্যের কেন্দ্রবিন্দু। এই শাহবাগের আগের নাম শুনলে একটু চমকে যেতে পারেন। “বাগ-ই-বাদশাহী” যার অর্থ রাজার বাগান যা পরবর্তীতে শাহবাগ নামে পরিচিতি লাভ করে। ফুলের প্রয়োজনে আমরা সবাই দৌড়ে যাই চিরচেনা এই শাহবাগে। বিয়ে কিংবা যেকোন অনুষ্ঠানের জন্য যেকোন পরিমাণের ফুল সুলভ মূল্যে এই শাহবাগে, অবশ্যই পেয়ে যাবেন। এখানের ফুলের দোকান গুলোতে পাইকারি ও খুচরা মূল্যে দেশি-বিদেশি সবরকম ফুল পাওয়া যায়। শাহবাগে শহর ও শহরের বাইরের সকল ফুল বিক্রেতারা ফুল সরবরাহ করে থাকে। তাই নিঃসন্দেহে বলা যায়, শাহবাগে যদি কোন ফুল আপনি না পান, তাহলে শহরের অন্য কোথাও তা পাবার সম্ভাবনা খুবই কম। এই জন্যই হয়তো ফুলের যেকোন প্রয়োজনে আমরা সকলেই ছুটে যাই শাহবাগে ফুলের দোকানে।

সিগমাজ গিফট শপ 

গুলশান এক নম্বর গোল চত্বরের কাছেই একটি গিফট শপ রয়েছে যেখানে ঘর সাজানোর জিনিসপত্রের সাথে পাওয়া যায় নানান দেশি বিদেশী ফুল। নাম সিগমাজ গিফট শপ। দূর থেকে হয়তো এটিকে তেমন আকর্ষণীয় নাও মনে হতে পারে  কিন্তু একবার ভেতরে প্রবেশ করলে আপনি জানতে পারবেন, কেন এটি ঢাকার সেরা ফুলের দোকান এর মধ্যে একটি। মনোমুগ্ধকর ফুলের এমন সংগ্রহ পাওয়া ভার। তাদের বেশীরভাগ ফুল ব্যবহৃত হয় বিভিন্ন ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের কাজে। কিন্তু, তারা পাইকারি ও খুচরা দুইভাবেই ফুল বিক্রয় করে থাকে। যদিও এই ফুলগুলোর দাম শাহবাগের ফুলের দোকানের তুলনায় একটু বেশি, কেননা এগুলো বেশিরভাগই বিদেশী ফুল। তবুও, এই দোকানের জনপ্রিয়তা কোন ভাবেই যেন কমে না।

পুষ্পনীড় 

পুষ্পনীড় ফুলের দোকান
রঙ বেরঙের ফুলের সমাহার

গুলশানে থাকার সবচেয়ে বড় একটি সুবিধা হল আপনি হাতের কাছেই সব পেয়ে যাচ্ছেন। গুলশান দুই এমনই এক এলাকা যেখানে সবকিছুই খুব সহজেই পাওয়া যায়। এবং পুষ্পনীড় এমনই একটি ফুলের দোকান। সিগমাজ এর মতই পুষ্পনীড়ে বিক্রি হয় উন্নতমানের দেশি বিদেশী ফুল। তবে খানিকটা তফাৎ তো রয়েছেই। সিগমাজ যেমন বিভিন্ন অনুষ্ঠান এবং বিয়ের জন্য ফুল এনে থাকে অন্যদিকে পুষ্পনীড় বুকে এবং কর্পোরেট ইভেন্টগুলোর জন্য ফুল সরবরাহ করে থাকে। অনেক নামীদামী হোটেল যেমন ওয়েস্টিন এবং লেকসোরের অন্যতম ফুলের যোগানদাতা এই পুষ্পনীড়।

বনানী 

বনানীর ফুলের দোকান
স্নিগ্ধ ফুলের অনন্য ঠিকানা

ঠিক শাহবাগের মতই বনানীতে রয়েছে বেশ কিছু স্নিগ্ধ ফুলের দোকান। যেখানে মনের মত দেশি বিদেশী সবরকম ফুল পেয়ে যাচ্ছেন। যদিও এটি শাহবাগের মত এত বড় নয় কিন্তু, আপনার চাহিদা মিটে যাওয়ার মত রয়েছে নানা ধরণের ফুল। অন্যান্য ফুলের দোকান এর থেকে এখানকার দোকানে রয়েছে কিছু ভিন্ন ধরণের ফুল যা আপনি অন্য দোকানে গেলে হয়তো পাবেন না। সারা বছর জুড়ে এখানে গোলাপ এবং অর্কিডের পাশাপাশি পাওয়া যায় নানা ধরণের বাহারি ফুল। এই ফুলগুলোর সুবাস নিয়ে এবং এই ফুলের সৌন্দর্য দেখে আপনি চাইলেই ঘণ্টার পর ঘন্টা পার করতে পারবেন।

রবীন্দ্রসরণী বটতলা

উত্তরার রবীন্দ্রসরণীর বটতলার কথা কি শুনেছেন কখনও? ভাবা যায় এখানেও হতে পারে জমজমাট ফুলের দোকান! হয়তো না! উত্তরার ৭ নম্বর সেক্টরে বটতলার কাছেই গড়ে উঠেছে দেশি বিদেশী ফুলের এক বাহারি সমাহার। এই ফুলের দোকান গুলোর জন্য উত্তরাবাসীদের আর যেতে হয়না এলাকার বাইরে। প্রয়োজনমত যেকোন ধরণের ফুল তারা এখান থেকে সংগ্রহ করতে পারে। এখানের সব ফুল খুব বেশি সজীব কেননা, উত্তরার আশে পাশের নার্সারি থেকে ফুল সংগ্রহ করে এখানে আনা হয়। তাই এখানের ফুলগুলো থাকে একদম তাজা এবং স্নিগ্ধ। 

শোক কিংবা সুখ সবকিছু উদযাপনের জন্য ফুলের কোন বিকল্প এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি। ফুলের সৌন্দর্য এবং স্নিগ্ধতার আবেশে নিজেদের জড়িয়ে নিতেই আমাদের প্রতিটি অনুষ্ঠানে ফুলের উপস্থিতি আমরা নিশ্চিত করি। এবং তারপরেই যেকোন সুযোগে ভিড় জমাই ফুলের দোকান গুলোতে। এখন অবশ্য আমরা কম বেশি জানি ঢাকার মধ্যে কোথায় আছে সেরা ফুলের দোকান গুলো! কেমন লাগল এই লেখাটি জানিয়ে দিন কমেন্টে।

Write A Comment