Reading Time: 5 minutes

বর্তমান যুগ “ডি আই ওয়াই” (ডু ইট ইউরসেলফ) এর যুগ। সবাই যে বেশিরভাগ কাজ নিজেই করতে চান এবং এ নিয়ে ইন্টারনেটে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় ভিডিও বা টিউটোরিয়ালেরও অভাব নেই। তাই কোন দরকারী কাজ আপনি না জানলেও জলদি সে বিষয়ে জেনে নিয়ে কাজ শুরু করে দিতে পারেন। কিন্তু যদি কোন কাজ শুরু করে দেখেন যে সেজন্য দরকারী কোন একটি যন্ত্র আপনার কাছে নেই, তখন কেমন লাগবে বলুন তো? এজন্যই বাসায় সব সময় হাতের কাছে কিংবা গুছিয়ে রাখা উচিত কিছু প্রয়োজনীয় হার্ডওয়্যার সামগ্রী ।

স্ক্রু-ড্রাইভার

স্ক্রু ড্রাইভার
স্ক্রু ড্রাইভার প্রয়োজন হতে পারে যে কোন সময়

স্ক্রু ড্রাইভার হল লাইফ সেভিং জিনিস। বিশ্বাস না হলে শক্তভাবে এঁটে যাওয়া কোন স্ক্রু একবার হাত বা অন্য কোন যন্ত্র দিয়ে খোলার চেষ্টা করে দেখতে পারেন। আর এজন্যই প্রয়োজনীয় হার্ডওয়্যার সামগ্রী নিয়ে লিস্ট করলে তাতে প্রথম দিকেই থাকবে একটি স্ক্রু ড্রাইভার সেটের নাম। বড় ছোট বা মাঝারী, লম্বা নলওয়ালা বা খাটো, স্টার বা মাইনাস, সব ধরণের, সব রকমের স্ক্রু ড্রাইভার রাখুন হাতের কাছে। জরুরী মুহূর্তে আপনার থেমে যাওয়া জীবনকে চালানো বা “ড্রাইভ” করার ক্ষমতা আছে একটি সঠিক স্ক্রু ড্রাইভারের!

প্লায়ার্স

প্লায়ার্স
প্লায়ার্স কী পরিমাণ দরকার তা শুধু প্রয়োজনের সময়েই বোঝা যায়

পেরেক টেনে বের করতে কিংবা যে কোন রকমের তার কাটতে বা বাঁকাতে আপনার যে জিনিসটি দরকার তা হল একটি প্লায়ার্স। এই প্লায়ার্সের প্রয়োজনীয়তা যে কতটুকু তা শুধুমাত্র প্রয়োজনের সময়ে একে হাতের কাছে না পাওয়া গেলেই উপলব্ধি করা যায়! তাই তেমন অবস্থায় যেন না পড়তে হয় এজন্য হাতের কাছে রাখুন একটি প্লায়ার্স অথবা কাটিং প্লায়ার্স।

অ্যাডজাস্টেবল রেঞ্চ

রেঞ্চ
একটি রেঞ্চও থাকা উচিত আপনার টুলবক্সে

প্লায়ার্সের মতনই আরেকটি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় হার্ডওয়্যার সামগ্রী হল রেঞ্চ বা স্প্যানার। আর এই রেঞ্চ যদি হয় অ্যাডজাস্টেবল অর্থ্যাৎ প্রয়োজনমত এর আকার বদলে নেয়া যায় তাহলে তো কথাই নেই। ছোট কোন স্ক্রু খুলতে বা লাগাতে স্ক্রু-ড্রাইভার ব্যবহৃত হয় কিন্তু ছোট-বড় কোন নাট, বল্টু বা পাইপ টাইট দেয়ার সময় রেঞ্চের জুড়ি মেলা ভার! জং ধরা বা শক্ত হয়ে আটকে যাওয়া কোন নাট খুলতে হলে দরকার রেঞ্চের। তাই আপনার টুলবক্সে অবশ্যই যে কয়েকটি জিনিস থাকা উচিত রেঞ্চ তার মধ্যে একটি। 

হাতুড়ি

হাতুড়ি
হাতুড়ির দরকার হয় যে কোন সময়

প্রয়োজনীয় হার্ডওয়্যার সামগ্রীর লিস্টে একদম প্রথমদিকেই থাকা উচিত হাতুড়ির। কখন কোথায় কীভাবে এর দরকার পড়ে যায় আপনি চিন্তাও করতে পারবেন না। এজন্য আপনার টুলবক্সে সবসময় ছোট একটি হাতুড়ি রাখা উচিত।  

টর্চ লাইট

টর্চ লাইট
দরকারের সময় একটি টর্চ লাইট হাতের কাছে থাকা উচিত

একটি টর্চলাইট বা ফ্ল্যাশলাইটও হতে পারে আপনার বিপদের সঙ্গী। কোন ইলেক্ট্রিক্যাল বা হার্ডওয়্যারের কাজ করতে অনেকসময়ই অন্ধকার স্থানে যেতে হয়। অথবা কাজ করার জন্য অনেকসময় বিদ্যুতের লাইন অফ করলে কাজের স্থান হয়ে পড়ে অন্ধকারাচ্ছন্ন। গ্যারেজ, বেইজমেন্ট বা এমন কোন জায়গা যেখানে কাজ করতে প্রয়োজন অতিরিক্ত আলোর, সেরকম জায়গার জন্য সাথে রাখুন একটু টর্চ লাইট। এখন অনেক রিচার্জেবল লাইট পাওয়া যায়, কিন্তু এগুলোর স্থায়িত্ব সাধারণত কম, অর্থ্যাৎ এগুলো বেশিদিন টিকে না। এজন্য চাইলে আপনি রিমুভেবল ব্যাটারীতে চলে এমন টর্চও ব্যবহার করতে পারেন। সেক্ষেত্রে জরুরী সময়ের জন্য আপনাকে কাছে রাখতে হবে কিছু অতিরিক্ত ব্যাটারীও।

মই

মই
মই-এর কাজ শুধু মই দ্বারাই সম্ভব!

আপনি যে কাজটি করবেন তা সবসময় আপনার হাতের নাগালের মধ্যেই থাকবে এমন তো না! তাই একটি মই হতে পারে আপনার দুঃসময়ের বন্ধু। উঁচু কোন তাক পরিষ্কার করা হোক, কিছু ঝুলানো হোক অথবা সামান্য একটি লাইট বা বাল্ব চেঞ্জ করাই হোক, ল্যাডার বা মইয়ের ভূমিকা তাতে অনস্বীকার্য। আর আপনার যদি মাথা উপরে সিলিং স্টোরেজ থাকে তাহলে তো কথাই নেই, মই থাকা আপনার জন্য বাধ্যতামূলক! আগে মই শুধু বাঁশ বা কাঠ দিয়েই বানানো হত। ইদানিং খুব চমৎকার স্টিলের মইও পাওয়া যাচ্ছে বাজারে।

সুইস নাইফ বা পকেট নাইফ

পকেট নাইফ
পকেট নাইফ হতে পারে সব কাজের কাজী!

ছোট একটি পকেট নাইফ বা সুইস আর্মি নাইফফে আপনি বলতে পারেন “সব কাজের কাজী!”। এই হালকা, ছোট্ট বস্তুটি আপনার বিপদের সময় অনেক কাজে লাগতে পারে। হঠাৎ করে কাঁচি, স্ক্রু-ড্রাইভারের মত জিনিস দরকার পড়লে আপনার বন্ধু হিসাবে থাকবে একটি পকেট নাইফ। বোতলে শক্তভাবে আটকে থাকা ক্যাপ খোলা থেকে পেরেক টেনে তোলা জরুরী ভিত্তিতে সবই করতে পারে পকেট নাইফ।

ড্রিল মেশিন

ড্রিল মেশিন
ড্রিল মেশিনও অনেক দরকারী একটি টুল

আপনার বাসাতে কখনো ড্রিল করার বা ফুটো করার প্রয়োজন পড়েনি এমনটা হতে পারে না। আর তাই হাতের কাছে একটি ড্রিল মেশিন থাকাটা অনেক সময়ই বেশ কার্যকর। এটি ব্যবহার করা যেতে পারে ঘরের দেয়াল, টেবিল বা অন্য আসবাবে দরকারী ফুটো করার কাজে। এখন বেশ কিছু তারবিহীন ড্রিল মেশিনও পাওয়া যায় যেগুলি নরমাল ড্রিল মেশিনের চেয়ে কিছুটা কম শক্তিশালী তবে তার না থাকার কারণে এর বেশ কিছু সুবিধাও রয়েছে।

মাপার ফিতা (মেজারিং টেপ)

মাপার ফিতা
কোন কিছু মাপতে হলে দরকার এটি

ছোট কিন্তু খুবই দরকারী একটি জিনিস। যে কোন কিছু মাপার জন্য এটি দরকার। নতুন বাসায় সিফট করতে, বা ইন্টেরিয়র নতুন করে সাজানোর সময় এর দরকার পড়ে। চোখের আন্দাজে মাপ নিয়ে নতুন জিনিস কিনে এনে বিপদে পড়তে না চাইলে আগে থেকেই সঠিক মাপ নিতে বাসায় রাখুন একটি মেজারিং টেপ। 

কাঁচি

কাঁচি
প্রয়োজনের জন্য হাতের কাছে রাখুন কাঁচি

যে কোন কিছু কাটার প্রয়োজনে সবার প্রথমে যে জিনিসটিত কথা আমাদের মাথায় আসে তা হল কাঁচি। প্রয়োজনীয় হার্ডওয়্যার সামগ্রী হিসাবে তাই একটি কাঁচি আপনার সাথে রাখা উচিত সবসময়।

এক্সটেনশন ক্যাবল (মাল্টিপ্লাগ)

মাল্টিপ্লাগ
হাতের কাছে একটি পাওয়ার স্ট্রিপ থাকলে তা খুবই কাজের হতে পারে

অনেক সময়ই দেখা যায় ইমার্জেন্সি কোন কাজের সময় ইলেকট্রিক কানেকশন দেবার জন্য হাতের আছে পোর্ট পাওয়া যায় না। আবার বাসার প্রতিদিনের ব্যবহার্য এক্সটেনশন কেবলও যতটুকুন দরকার ততটুকুন লম্বা না। এরূপ বিড়ম্বনায় না পড়তে চাইলে জরুরী কাজের জন্য এক্সটেনশন ক্যাবল (যা আমদের দেশে মাল্টিপ্লাগ হিসাবে বেশি পরিচিত) প্রস্তুত রাখুন।

বাসায় এমন নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজ নিজে করতে পারলে তা যে শুধু সময় বাঁচায় কিংবা জরুরী সময়ে কাজে আসে তাই না, বরং তা খরচও বাঁচিয়ে দেয় অনেক পরিমাণে। কারণ যে কোন কাজে ইলেক্ট্রিক্যাল বা স্যানিটারি মিস্ত্রি ডাকলে মুহুর্তেই হাত থেকে বের হয়ে যায় অনেকগুলো টাকা। এজন্যই এইসব প্রয়োজনীয় হার্ডওয়্যার সামগ্রী রাখুন হাতের কাছেই এবং শিখে নিন জরুরী বিভিন্ন কাজ। আর এগুলো কেনার সময় অবশ্যই প্রয়োজনে কিছুটা বেশি দাম দিয়ে হলেও ভাল কোয়ালিটির জিনিস কিনবেন। কারণ প্রতিটি যন্ত্র হয়ত আপনার প্রতিদিন দরকার পড়বে না, কিন্তু যেদিন দরকার পড়বে সেদিন যদি দেখা যায় এটি কাজ করছে না, তখন যে বিপদ হবে তা কিছু টাকা বাচানোর চেয়ে অনেক বেশি!

Write A Comment