Archive

2021

Browsing

Reading Time: 3 minutes বাড়ি নির্মাণের ক্ষেত্রে যে পরিমাণ ঝক্কি-ঝামেলা পোহাতে হয় সহজে কেউ বাড়ি নির্মাণ করার মত কাজে হাত দিবে না। তারা অনায়াসে বেছে নিবে বাসা সংস্কারের উপায়। কিন্তু, এমন অনেক বিষয় রয়েছে যেখানে বাসা সংস্কার বা পুনর্নির্মাণের চেয়ে বাড়ি সম্পূর্ণ পুনর্নির্মাণের পথ বেছে নেওয়া যেমন উত্তম তেমনি লাভজনক। এখন প্রশ্ন হচ্ছে বাড়ি পুনর্নির্মাণের কারণ কী কী?  ফাউন্ডেশন  বাড়ি পুনর্নির্মাণের ক্ষেত্রে ফাউন্ডেশন-সম্পর্কিত বিষয়গুলো সবার কাছেই গুরুত্বপূর্ণ হওয়া উচিত। আপনার ফাউন্ডেশনে যদি কোন ত্রুটি থেকে থাকে বা সংস্কার করা প্রয়োজন হয় এক্ষেত্রে বাড়ি পুনর্নির্মাণের কথা বিবেচনা করুন। কারণ, ফাউন্ডেশন হচ্ছে একটি ভবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান যা পুরো কাঠামোকে এক সাথে ধরে রাখে এবং এটা কতটা সময় স্থায়ী হবে সেটাও নির্ধারণ করে থাকে। এছাড়াও, যদি ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন জায়গায় পানির লিকেজ বা মোল্ড থাকে তাহলে আপনি কেবল সেই অংশটি সংস্কারের পরিবর্তে ফাউন্ডেশন সম্পূর্ণরূপে পুনর্নির্মাণ করতে পারেন। এই সমস্ত সমস্যা থাকলে ফাউন্ডেশন পুনর্নির্মাণ করা খুব জরুরী নাহলে সময়ের সাথে সাথে এটি ভবনের কাঠামোকে প্রভাবিত করবে। বড় কোন…

Reading Time: 5 minutes মাধ্যমিকের পাঠ শেষ করে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা অর্জনে শিক্ষার্থীদের পরবর্তী লক্ষ্য থাকে উচ্চ মাধ্যমিকে পড়াশোনার জন্য কলেজে ভর্তি হওয়া। বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা বা মানবিক, পছন্দের বিভাগে ভর্তি হওয়ার জন্য প্রয়োজন শহরের সুপরিচিত কলেজগুলো সম্পর্কে  প্রয়োজনীয় ধারণা থাকা। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এর ওয়ার্ডের আওতাধীন এলাকা সমূহে রয়েছে বেশ কিছু কলেজ। ঢাকা উত্তরের সেরা কলেজ গুলোর পাশাপাশি যারা ঢাকা দক্ষিণে অবস্থিত কলেজ এর খোঁজ করছেন, তাদের জন্য এই ব্লগে থাকছে ঢাকা দক্ষিণের সেরা কলেজ সমূহ কোথায় অবস্থিত এবং এই কলেজ সমূহ সম্পর্কে প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য। চলুন জেনে নেয়া যাক কোন কোন কলেজ রয়েছে নামকরা কলেজের তালিকার শীর্ষে।    ভিকারুননিসা নুন স্কুল এবং কলেজ ঢাকা দক্ষিণের সেরা কলেজ গুলোর মধ্যে অন্যতম ভিকারুননিসা নুন স্কুল এবং কলেজ। ঢাকার দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এর অন্তর্ভুক্ত বেইলি রোড এলাকায় অবস্থিত এই কলেজটি মেয়েদের জন্য অন্যতম সেরা একটি স্কুল ও কলেজ। ১৯৫২ সালে তৎকালীন পাকিস্থানের গভর্নর ফিরোজ খান নুনের সহধর্মিনী আধুনিক এই শিক্ষা…

Reading Time: 6 minutes চলন্ত ট্রেনের জানালা দিয়ে তাকিয়ে মাইলের পর মাইল অনেকবার পাড়ি দেয়া হয়েছে । কখনো উদাসীন হয়ে ভেবেছি পেছনে ফেলে আসা জীবনটাকে, কখনো ভেবেছি এগিয়ে আসা ভবিষ্যৎ নিয়ে। ট্রেনের গন্তব্যের সাথে খুঁজে ফিরেছি নিজেও গন্তব্য। দূরের যাত্রাগুলো ক্লান্তিকর হলেও ট্রেন যাত্রাগুলো বরাবরই হয়েছে আনন্দের। মাইলের পর মাইল পাড়ি দেয়া হয়েছে জানালায় চোখ রেখে। পরিবার কিংবা বন্ধুবান্ধব বা কখনো একা ট্রেনে যাত্রারত সময়টা কেটেছে আড্ডা, গল্প বা গানে! ট্রেনের সবকিছুই আসলে ভালো লাগার। ট্রেনের ভেতরের স্থাপত্যশৈলী, বসার ব্যবস্থা, কেবিন কিংবা ট্রেনের মজাদার নাস্তা সবকিছুই বেশ সাজানো গোছানো। কেবল ট্রেনেই নয়, এই ট্রেনগুলো যেখানে থামে সেই স্টেশনের স্থাপত্যশৈলীও ভিন্ন এবং অদ্ভুত সুন্দর। আজকে এমনই এক স্টেশনের গল্প বলবো। যা দেশের অন্যান্য স্টেশনের থেকে সবদিক থেকে আলাদা আর সেরা! চলুন শুরু করি কমলাপুর রেলস্টেশনের স্থাপত্যশৈলী নিয়ে আজকের ব্লগ!  ইতিহাস  বাংলাদেশের প্রথম রেলস্টেশন হলো কুষ্টিয়ার জগতি এবং সবচেয়ে বড় রেলওয়ে জংশন ঈশ্বরদী। তবে বাংলাদেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং বৃহত্তম রেলওয়ে স্টেশন হচ্ছে ঢাকার কমলাপুর স্টেশন। ব্রিটিশ…

Reading Time: 4 minutes আধুনিক স্থাপত্যশৈলীতে কিছুটা পরিবর্তন আনতে বায়োফিলিক ডিজাইন হতে পারে নান্দনিকতার নতুন এক ধাপ। স্থাপত্যে প্রকৃতির ছোঁয়া এবং সবুজের উপস্থিতি  এই ডিজাইনের অন্যতম প্রধান একটি উপাদান। বায়োফিলিক স্থাপত্যে যে বিষয়গুলো সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য পায়, তা হল বাড়ির বিভিন্ন কর্নারে থাকা ছোট ছোট প্ল্যান্টের পট, ঘরের ভেতর প্রাকৃতিক আলোর প্রবেশ এবং পুরো ঘর জুড়ে থাকা প্রকৃতির রঙের থিম। আর তাই এক কথায় বলতে গেলে বায়োফিলিক ডিজাইন মানেই হল যে স্থাপত্যে থাকবে প্রকৃতির উপস্থিতি, সাথে বাতাস চলাচলের সুব্যবস্থা, গাছপালা এবং অন্যান্য প্রাকৃতিক অনুষঙ্গের ছোঁয়া, যা ভবনের ভেতরের পরিবেশকে আরও প্রাণবন্ত করে তুলবে।    রিয়েল এস্টেট স্থাপত্যে সবুজের উপস্থিতি  ৯০ এর দশকের মাঝামাঝি থেকে ২০০০ সালের শুরুর দিক পর্যন্ত সময়ে স্থাপত্য শিল্পে এক ধরনের পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। যা মূলত রিয়েল এস্টেট স্থাপত্যে প্রকৃতির উপস্থিতিকে অনুপ্রাণিত করে। এই ডিজাইনের মূল লক্ষ্যই হল পরিবেশবান্ধব এবং বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী উপায়ে  ভবনের অবকাঠামো তৈরি করা। বায়োফিলিক ডিজাইনে ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে এই বিষয়টি আধুনিক স্থাপত্যশৈলীকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে…

Reading Time: 11 minutes শহর পরিচালনা এবং সঠিকভাবে শহর ব্যবস্থাপনার জন্য ঢাকার সিটি কর্পোরেশনকে মূলত দুইটি কর্পোরেশনের অধীনে বিভক্ত করা হয়। যার একটি হল ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন। রাজধানী ঢাকার উত্তর অংশের পাশাপাশি ঢাকার দক্ষিণাঞ্চল সার্বিকভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে তাই গঠন করা হয়  ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন বা ডিএসসিসি। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড ও এরিয়া সমূহ এর পাশাপাশি ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড সংখ্যা ৭৫টি। এছাড়া সংরক্ষিত ওয়ার্ড রাখা হয়েছে ২৫টি।  ডিএসসিসি বা  ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের অধীনে থাকা এলাকা সমূহ এর মধ্যে রয়েছে ধানমন্ডি, খিলগাঁও, বাসাবো, মুগদাপাড়া, ফকিরাপুল, আরামবাগ, মতিঝিল, শাহজাহানপুর, মালিবাগ, পল্টন, শান্তিনগর, সার্কুলার রোড, গ্রীন রোড, এলিফ্যান্ট রোড, সেগুনবাগিচা, শাহবাগ, ওয়ারী, যাত্রাবাড়ী, পুরান ঢাকা সহ অন্যান্য আরও এলাকা সমূহ।   ১০টি অঞ্চলে বিভক্ত ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মোট আয়তন, ওয়ার্ড এবং এর আওতাধীন এলাকা সমূহ সম্পর্কে আমাদের অনেকেরই হয়তো পরিপূর্ণভাবে ধারণা নেই। আর তাই আপনাদের সুবিধার্থে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ওয়ার্ড ও এলাকা সমূহ এর সম্পূর্ণ তালিকা…

Reading Time: 3 minutes বিপ্রপার্টি এর লক্ষ্য সবসময় তার ক্লায়েন্টদের জন্য সম্পত্তি ক্রয় -বিক্রয়ের অভিজ্ঞতাকে অনেক সহজ করে তোলা। বিপ্রপার্টি এর সমৃদ্ধ ওয়েবসাইট এবং এর নানারকম ফিচারের সাহায্যে যে কেউ তাদের ঘরে বসেই প্রপার্টি/সম্পত্তি দেখতে পারবেন এবং তা সম্পর্কে খোঁজ নিতে পারবেন। এছাড়াও ঢাকা এবং চট্টগ্রামে বিপ্রপার্টি এর ৯ টি অফিস ও বিক্রয়কেন্দ্র রয়েছে। বিপ্রপার্টি এর মাধ্যমে সম্পত্তি ক্রয়কারী গ্রাহকদের আশ্বস্ত করা হয় যে সম্পত্তি সঠিকভাবে যাচাই করা হয়েছে এবং সমস্ত কাগজপত্র সঠিক আছে। সম্পত্তির এই যাচাই-বাছাই আমাদের লিগ্যাল টিম/আইনি দলের সাহায্যে সম্পন্ন করা হয়, যারা অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে লেনদেন হওয়ার পূর্বেই প্রয়োজনীয় প্রতিটি দলিল বা নথির যথাযথতা নিশ্চিত করে। আজকের ব্লগে, আমরা দেখে নেব কিভাবে বিপ্রপার্টি এর আইনি পরিষেবাগুলো কাজ করে এবং প্রতিটি সম্পত্তি সঠিকভাবে পরীক্ষা এবং যাচাই-বাছাই করার জন্য তারা কী করে। বিপ্রপার্টি লিগ্যাল সার্ভিস বিপ্রপার্টির একটি নিবেদিত পেশাজীবী আইনি দল রয়েছে, যাদের একমাত্র উদ্দেশ্য হল ক্লায়েন্টের/ক্রেতার কাছে হস্তান্তর করার পূর্বেই একটি সম্পত্তির সঠিক যাচাই নিশ্চিত করা। এটি করার জন্য, আইনি দলকে…

Reading Time: 4 minutes রিয়েল এস্টেটে বিনিয়োগ করার সুবিধা রয়েছে অনেক। নির্বাচিত প্রপার্টি থেকে নগদ প্রবাহ বা ক্যাশ ফ্লো, রিটার্ন এবং কর প্রদানের মত নানাবিধ সুবিধা উপভোগ করার পাশাপাশি এই সেক্টরে বিনিয়োগের মাধ্যমে পয়সা ও ব্যাংক ব্যাল্যান্স তৈরি করার যথেষ্ট সম্ভাবনা প্রদান করে থাকে। গত দশকে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো, বাংলাদেশের রিয়েল এস্টেট মার্কেটও ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। রিয়েল এস্টেটে বিনিয়োগ এখন বেশ সহজ এবং জনপ্রিয় একটি ক্ষেত্র। কেবল রাজধানী ঢাকাই এখন বিনিয়োগকারীদের জন্য একমাত্র আকর্ষণ নয়। রিয়েল এস্টেটে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বন্দরনগরী চট্টগ্রামেও ঢাকার মতই বিনিয়োগের চাহিদা রয়েছে। আপনি কি চট্টগ্রাম রিয়েল এস্টেটে বিনিয়োগ  নিয়ে সন্দিহান? আজকের ব্লগে আমরা চট্টগ্রাম রিয়েল এস্টেটে বিনিয়োগের সম্ভাব্য কারণ নিয়ে আলোচনা করবো!  চলমান উন্নয়ন   গত এক দশকে, চট্টগ্রাম কিছু অবিশ্বাস্য উন্নয়নের সাক্ষী হয়েছে। এই শহরের প্রবৃদ্ধি ছিল লক্ষণীয়, অর্থনৈতিক অঞ্চল থেকে শুরু করে সমুদ্র বন্দর এমনকি এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে ইত্যাদি সবকিছুই এখন আলোচনার মূল বিষয়। মিরসরাই ইকোনমিক জোন একটি শিল্প অর্থনৈতিক অঞ্চল যা বর্তমানে মীরসরাই উপজেলা, চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ চ্যানেলের তীরে…

Reading Time: 5 minutes ঢাকায় বসবাসের জন্য জনপ্রিয় যেসব এলাকা রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম মিরপুর। ট্রাফিক জ্যাম, মেট্রো রেল কিংবা মজাদার সব খাবারের রেস্টুরেন্টের জন্য মিরপুরের নাম শোনা হয়নি এমন মানুষ হয়তো খুঁজে পাওয়া মুশকিল। তবে ভাড়া ও সুযোগ-সুবিধার সামঞ্জস্যে ঢাকার সেরা এলাকা গুলোর মধ্যে মিরপুর অন্যতম। চাহিদা এবং সুযোগ-সুবিধার দিক বিবেচনা করলে এই এলাকায় আপনি বিভিন্ন আয়তন এবং ভাড়ার ফ্ল্যাট খুঁজে পাবেন। শুধু তাই-ই নয়, নামীদামী স্কুল-কলেজ, শপিং মল, হাসপাতাল সব কিছুই আছে ঢাকার বহু পুরতন এই এলাকা জুড়ে। কেনাকাটার সুবিধার জন্য মিরপুর ও এর আশেপাশের এলাকায় বসবাসরত অনেকেই শপিং করতে পছন্দ করেন মিরপুরের বিভিন্ন মার্কেট থেকে। তবে স্বাস্থ্য সেবার দিক বিবেচনা করলেও কিন্তু পিছিয়ে নেই মিরপুরের হাসপাতাল গুলো। মিরপুরে রয়েছে ঢাকার সুপরিচিত কয়েকটি হাসপাতাল। যেখান থেকে আপনি সব ধরনের চিকিৎসা সেবা পেতে পারবেন। আর এ কারণেই ঢাকা এবং ঢাকার বাইরের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এখানে চিকিৎসা সেবা নিতে অনেকেই আসেন হরহামেশাই। মিরপুরের হাসপাতাল এর কথা বললে যে ৫টি হাসপাতাল এর কথা না বললেই…

Reading Time: 4 minutes প্রপার্টিতে বিনিয়োগের জন্য ঢাকায় সম্ভাব্য এলাকার কোন অভাব নেই। এসব এলাকায় বসবাসের মাধ্যমে আপনি অনেক ধরনের সুযোগ-সুবিধাই পাবেন। আর তাই অন্য যেকোনো সেক্টরের তুলনায় রিয়েল এস্টেট খাতে বিনিয়োগ করা যেমন লাভজনক, তেমনি সময়োপযোগী। আর এক্ষেত্রে প্রপার্টিতে বিনিয়োগের জন্য ঢাকার সম্ভাব্য এলাকাসমূহ কোনগুলো, সে বিষয়েও বিস্তারিত ধারণা থাকা প্রয়োজন।    খুব সহজ করে যদি বলি, ব্যাংকিং সেক্টর, স্টক মার্কেট-সহ অন্যান্য যেকোনো সেক্টরের তুলনায় রিয়েল এস্টেট খাতের স্থায়িত্ব যেমন বেশি, তেমনি স্থিতিশীলও বটে। কেননা প্রপার্টির মতো স্থাবর সম্পত্তি গুলোর মূল্য খুব সহজে যেমন পরিবর্তিত হয় না, তেমনি হুট করে আবার ওঠানামাও করে না। তবে রিয়েল এস্টেট বিনিয়োগের জন্য আপনাকে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে এলাকা নির্বাচন করা প্রয়োজন। অন্যথায় এই বিনিয়োগ সফল নাও হতে পারে।  ২০ বছর আগেও, বারিধারা এবং গুলশান এলাকায় বিনিয়োগ বেশ লাভজনক বলেই ধরে নেয়া হতো। কেননা সে সময় থেকে এখন পর্যন্ত এই এলাকা গুলোর জমির দাম যথাক্রমে ৭০০% এবং ১০৩৬% বেড়ে গিয়েছে।  তবে বর্তমান সময়ে এসে বিচক্ষণ বিনিয়োগকারীরা কখনোই এই চুক্তিতে…

Reading Time: 3 minutes বসবাসের জন্য কেবল মনের মত অ্যাপার্টমেন্ট পেলেই হয় না। পছন্দ হওয়া চাই আশেপাশের এলাকাসহ আরও অনেক কিছু। এবারের আগস্ট ২০২১ এর সেরা প্রপার্টি তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে এমনই কিছু এলাকা। যেখানে অ্যাপার্টমেন্ট কেনা যেন অনেকেরই স্বপ্ন। তালিকায় থাকা প্রত্যেকটি অ্যাপার্টমেন্ট দেখতে যেমন দারুণ তেমনি দামটাও যুক্তিসংগত।  স্টাইলিশ ফিটিংস, মডার্ন ইন্টেরিয়র ও বেসিক সার্ভিস সহ এই অ্যাপার্টমেন্টগুলোর একটি হতে পারে আপনার স্বপ্নের ঠিকানা। তাই ভালো করতে জানতে দেখে দিন আজকের সেরা এলাকার সেরা কয়েকটি অ্যাপার্টমেন্ট! আফতাবনগর এলাকায় ২,৩৭৭ বর্গফুটের অসাধারণ একটি অ্যাপার্টমেন্ট বিক্রয় করা হবে!  আফতাবনগরের বি ব্লকে অবস্থিত ২,৩৭৭ স্কয়ার ফিটের দুর্দান্ত একটি ব্র্যান্ড নিউ অ্যাপার্টমেন্ট। পুরো পরিবার নিয়ে বসবাসের জন্য ৪ বেড ও ৪ বাথের এই অ্যাপার্টমেন্টটি কিন্তু একদম পারফেক্ট। আরো অবাক করা বিষয় হচ্ছে, প্রতিটি বেডের সাথেই রয়েছে বারান্দা আর এটাচড বাথ। সাথে রয়েছে বিশাল পরিসরের একটি ডাইনিং স্পেস আর তার ঠিক পরেই চমৎকার একটি ড্রয়িং স্পেস। কিচেন স্পেসটিও বেশ ছিমছাম। তবে এই অ্যাপার্টমেন্টটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হচ্ছে…