বিক্রয়ের জন্য ফ্ল্যাট - আদাবর

এই সার্চ রেজাল্টটি সেভ করুন
সব ফিল্টার মুছে ফেলুন
সর্বমোট ৩১২ টি ফ্ল্যাট এর মাঝে ১ - ২৪ পর্যন্ত ফ্ল্যাট দেখুন
নতুন থেকে পুরাতন

সেরা প্রপার্টিগুলো

আদাবরে কেন আপনার স্বপ্নের আবাস করবেন

আদাবর ঢাকা শহরের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত। আদাবর থেকে ঢাকার যে কোনো জায়গায় চলাচল সুবিধাজনক হওয়ায়, অনেক মানুষই, এই এলাকাতে বসবাস করতে পছন্দ করে। ঢাকা শহরের অন্যান্য এলাকার তুলনায় আদাবরের জীবন যাপন খুব লাভজনক। অধিবাসীদের দৈনন্দিন জীবন সহজ এবং আরামদায়ক করতে আদাবরে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমান শপিংমল, সুপার শপ, ফুড চেইন এবং কনফেক্শনারির দোকান ইত্যাদি।

আদাবর থেকে যাতায়াত এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা

- ঢাকা শহরের মধ্যবর্তী স্থান হওয়ার কারণে, আদাবর থেকে ঢাকার যে কোনো এলাকায় খুব সহজেই প্রবেশ করা যায়। আদাবরের নিকটস্থ এলাকাগুলো হচ্ছে, মোহাম্মদপুর, শ্যামলী ও কল্যাণপুর। আদাবর থেকে ধানমন্ডির দূরত্ব ৪ কিলোমিটার এবং মাত্র ২০ মিনিটের মধ্যেই পৌঁছানো যায়। এবং অন্য আরেকটি এলাকা হচ্ছে মিরপুর যা আদাবর থেকে ৭ কিলোমিটার দূরত্ব এবং প্রায় ৩৩ মিনিটের মধ্যেই পৌঁছানো যায়। পর্যাপ্ত বাস স্টপ,সিএনজি,রিক্সা সহ অন্যান্য যানবাহনের সহজলভ্যতা আদাবর অধিবাসীদের যাতায়াতকে করেছে সুবিধাজনক এবং স্বাচ্ছন্দময়।

আদাবর ফ্ল্যাট এবং প্রপার্টিসমূহ

- বসবাস এবং বাণিজ্যিক প্রয়োজনে ব্যবহারের জন্য আদাবর এলাকায় ব্যাপক প্রপার্টি রয়েছে। সাধারণত এখানে প্রপার্টির মালিক হওয়া একজন ব্যক্তির জন্য খুবই লাভজনক। এই আবাসিক এলাকাটি মধ্য আয়ের পরিবারগুলোর বসবাসের জন্য খুবই উপযোগী। আদাবর এলাকাতে বসার ঘর, খাবার ঘর সহ এখানে ২ বেডরুম থেকে শুরু করে ৩ বেডরুম এর ফ্লাট রয়েছে। শ্যামলী এবং মোহাম্মদপুরের নিকটস্থ এই এলাকাটি সমাজের ব্যবসায়ী শ্রেণী কে আকৃষ্ট করে।

আদাবর জীবন যাপন এবং কমিউনিটি

- আদাবর তার অধিবাসীদের আমোদ প্রমোদের সাথে বসবাস করার উপাদান প্রদান করে। যেমন আদাবরের অধিবাসীরা সাপ্তাহিক ছুটির দিনে তাদের সন্তানদের বিনোদন দিতে নিয়ে যেতে পারে,মাত্র কিছু সময়ের দূরত্ব ডি এন সি সি ওয়ান্ডারল্যান্ডে মানুষের শপিং এর প্রয়োজনীয়তা পূরণে বেশ কিছু শপিং মল রয়েছে আদাবর এলাকায়। এছাড়াও অধিকাংশ অধিবাসীরা শ্যামলী স্কয়ার পছন্দ করে যেহেতু মোহাম্মদপুরের নিকটস্থ এলাকায় অবস্থিত, তাই সারা দিনের ব্যস্ততা শেষে অধিবাসীরা বিনোদনের জন্য চাইনিজ, রেস্তোরাঁ এবং অন্যান্য খাবারের দোকান গুলোতে অবসর সময় কাটাতে পছন্দ করে। আবাসিক এবং বাণিজ্যিকি এলাকার সংলগ্নে বেশকিছু ব্যাংকার শাখা এবং এটিএম বুথ রয়েছে।

আদাবর স্কুল / কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়

- আদাবরে রয়েছে বেশ কিছু ভালো স্কুল যা আপনার সন্তানের সুশিক্ষার ব্যাপারে দুশ্চিন্তা দূর করবে। আদাবর আইডিয়াল স্কুল, বেগম নূর জাহান মেমোরিয়াল গার্লস হাই স্কুল, শ্যামলী পাবলিক স্কুল, কুইন্স কলেজ এছাড়াও অন্যান্য আরো ভালো ভালো স্কুল রয়েছে এই এলাকাতে।

আদাবর হাসপাতাল এবং জরুরি চিকিৎসা সেবা

- পরিবার নিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাসের জন্য প্রয়োজনে জরুরি স্বাস্থ্যসেবার বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিবেচ্য বিষয়। ঢাকা সেন্ট্রাল ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল, শ্যামলীতে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতাল স্থানীয় অধিবাসীদের জরুরি স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করে।