বিক্রয়ের জন্য ফ্ল্যাট - মুগদাপাড়া

এই সার্চ রেজাল্টটি সেভ করুন
সব ফিল্টার মুছে ফেলুন
সর্বমোট ৮১ টি ফ্ল্যাট এর মাঝে ১ - ২৪ পর্যন্ত ফ্ল্যাট দেখুন
নতুন থেকে পুরাতন

সেরা প্রপার্টিগুলো

মুগদাপাড়া কেন আপনার স্বপ্নের আবাস করবেন

মুগদাপাড়া এলাকা ঢাকা শহরের সবুজবাগ থানার আওতাধীন যা মানিকনগর, আহমেদাবাদ সংলগ্ন। দেশের প্রধান রেলওয়ে স্টেশন কমলাপুর মুগদাপাড়া’র খুব কাছেই অবস্থিত। যারা পরিবার নিয়ে সহজ এবং সাশ্রয়ী জীবনযাপণ করতে চান, তাদের জন্য মুগদাপাড়া একটি আর্দশ জায়গা। অনেক স্থানীয় মুদিখানা, দোকান এবং অন্যান্য নাগরিক সুবিধা ওখানকার নাগরিকদের জন্য একটি স্বাচ্ছন্দ্যময় জীবন উপহার দেয়।

মুগদাপাড়া থেকে যাতায়াত এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা

- মুগদাপাড়ার যোগাযোগ ব্যবস্থা বেশ সুবিধাজনক, কারণ এটি ঢাকার অন্যান্য সকল রুটের সাথে বেশ সহজে যাতায়াতের পথকে সংযুক্ত করে। মান্ডা রোডটি মুগদাপাড়ার পাশে দিয়ে চলে গেছে। অতীশ দীপঙ্কর রোড দ্বারা মুগদাপাড়ার সাথে সংযুক্ত হয়েছে কমলাপুর ও বাসাবো। দেশের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বাণিজ্যিক এলাকা মতিঝিল এই এলাকা থেকে মাত্র ৫ কিমি দূরে অবস্থান করছে। মাত্র ২০ মিনিটের দূরত্বে অবস্থিত অতীশ দীপঙ্কর রোড ব্যবহার করে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে যাতায়াত করা যায় । পরিবহন হিসাবে সিএনজি, ট্যাক্সি এবং অনলাইন পরিবহন অ্যাপস্ যেমন উবার এবং পাঠাও সহজে পাওয়া যায়।

মুগদাপাড়ার ফ্ল্যাট এবং শংকার বারি সড়ক

- বিভিন্ন বৈশিষ্ঠ্যের আবাসনের পর্যাপ্ততার কারণে মুগদাপাড়া সকল শ্রেণীর মানুষের আগ্রহের কারণ হিসাবে বিবেচিত হয়েছে। মানুষের আগ্রহের কথা বিবেচনা রেখে এই এলাকায় বিভিন্ন আয়তনের ফ্ল্যাট এর সুযোগ আছে। বেশিরভাগ ফ্ল্যাটে ২টি এবং ৩টি বেডরুম থাকে। ফ্ল্যাটের আয়তন সাধারণত ৬০০ বর্গফুট থেকে শুরু হয়ে ২০০০ বর্গফুট পর্যন্ত হয়ে থাকে। মিতব্যয়ী শ্রেণীর জন্য এই এলাকায় নানা ধরণের সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে। ফ্ল্যাট এর মূল্য ফ্ল্যাটের সুবিধা অনুযায়ী নির্ধারণ হয়ে থাকে।

মুগদাপাড়ার জীবন যাপন এবং কমিউনিটি

- ব্যস্তদিন পার করার পর মুগদাপাড়া এবং তার কাছাকাছি এলাকায় অনেক রেস্তোরা, ক্যাফে এবং রাস্তার পাশে ভাসমান খাবারের দোকান আছে যা আপনারকে বিভিন্ন খাবারের স্বাদ গ্রহণে এবং সময় কাটাতে সাহায্য করবে। ঢাকার অন্যতম প্রিয় স্থান রমনা পার্ক মুগদাপাড়া থেকে মাত্র ২০ মিনিট দূরে অবস্থিত। শহরের সকল বয়সের মানুষদের জন্য এই জায়গাটি বেশ উপযোগী। স্থানীয়দের সকালে এবং সন্ধ্যায় হাঁটার জন্য অথবা একটি নিখুঁত প্রকৃতির স্পর্শ পেতে রমনা পার্ক একটি অন্যতম আর্কষণ শহরবাসীর কাছে।

মুগদাপাড়ার স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়

- মানসম্মত শিক্ষা প্রদানের জন্য মুগদাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং কোয়ালিটি এডুকেশন স্কুল আছে।

মুগদাপাড়ার হাসপাতাল ও চিকিৎসা জরুরি ব্যবস্থা

- স্থানীয়দের মানসম্মত জরুরি চিকিৎসা সেবা প্রদানের জন্য মুগদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, মুগদাপাড়া জেনারেল হাসপাতাল এবং ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল পার্শ্ববর্তী কাকরাইলে অবস্থিত।