বিক্রয়ের জন্য ফ্ল্যাট - বসুন্ধরা আর-এ

এই সার্চ রেজাল্টটি সেভ করুন
সব ফিল্টার মুছে ফেলুন
সর্বমোট ৭০৫ টি ফ্ল্যাট এর মাঝে ১ - ২৪ পর্যন্ত ফ্ল্যাট দেখুন
নতুন থেকে পুরাতন

বসুন্ধরায় কেন আপনার স্বপ্নের আবাস করবেন?

বসুন্ধরা আর/এ ঢাকা শহরের একটি এলাকা, যা এখানকার অধিবাসীদের একটি সবুজ পরিবেশ এবং পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করে। অধিবাসীরা তাদের বেড রুম অথবা গ্যারেজের প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী পছন্দ করার সুযোগ রয়েছে। বসুন্ধরা আর/এ একটি উন্নোয়নশীল এলাকা, যেখানে উদ্ভাবনী প্রকল্প নিয়ে আসছে, এখানে সব পরিসরের সব রকমের প্রপার্টি এর মার্কেটিং চিন্তা ভাবনার অংশে রয়েছে। পরিবার নিয়ে বসবাসের সঠিক জায়গা পছন্দ করার জন্য, নিঃসন্দেহে এই এলাকাটি ক্লাইন্টদের পছন্দের শীর্ষে হতে পারে।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার থেকে যাতায়াত এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা

- বসুন্ধরা রেসিডেন্সিয়াল এলাকাটি বসবাসের উপযুক্ত, পরিবেশ বান্ধব একটি এলাকা যার পার্শ্ববর্তী শহরের উল্লেখযোগ্য এলাকা হচ্ছে বনানী, গুলশান,বারিধারা এবং নিকুঞ্জ। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের দূরত্ব প্রায় ৬ কিলোমিটার এবং ১১ মিনিটের ড্রাইভ। বনানী ও গুলশানের দূরত্ব ১০ কিলোমিটার, এবং ২২ মিনিটের ড্রাইভ। উত্তরার দূরত্ব প্রায় ১৩ কিলোমিটার, এবং ৩৫ মিনিটের ড্রাইভ। ৩০০ফিট এলাকাটি প্রবেশের জন্য বিমানবন্দর সড়কে সংযুক্ত হয়েছে। বসুন্ধরা গেট বাস স্টপ, সিএনজি ,অটো রিক্সা এবং মোবাইল এপ্লিকেশন যোগ্য যানবাহন ছাড়াও সরকারি যানবাহন গুলো নিয়মিত ব্যবহার করা যায়।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকাতে ফ্ল্যাট এবং প্রপার্টিসমূহ

- সংশ্লিষ্ট এলাকার সব ধরনের বাসিন্দাদের শ্রেণী অনুযায়ী বিভিন্ন ধরণের আবাসিক অ্যাপার্টমেন্ট এবং ফ্ল্যাটগুলির পর্যাপ্ততা রয়েছে এখানে। ১১00 স্কয়ার ফিট থেকে শুরু করে ২০০০ স্কয়ার ফিট পরিসরের ফ্ল্যাট পর্যাপ্ত রয়েছে। সাধারণত আবাসিক ফ্ল্যাটের বিক্রয় মূল্য পর্যাপ্ত পরিসীমার মধ্যেই রয়েছে কিন্তু এক ব্লক থেকে অন্য ব্লকের ক্ষেত্রে মূল্য কিছুটা বৃদ্ধি পেয়ে থাকে। যেমন, এ- ব্লক এলাকাতে কিছু বিশিষ্ট প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি, হেড অফিস, মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানি এ-ব্লক এর সাথে সংযুক্ত থাকায়, এ- ব্লক এলাকার ফ্লাট গুলো বেশ ব্যয়বহুল। যাদের লক্ষ্য হচ্ছে খুঁজে বের করা আরামদায়ক, উপভোগ্য, সাশ্রয়ী মূল্যের, একই সঙ্গে পছন্দমতো একটি ভাল ফ্ল্যাট।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার জীবন যাপন এবং কমিউনিটি

- বসুন্ধরা আর/এ এলাকায় দেশের সবচেয়ে বড় শপিং মল যমুনা ফিউচার পার্ক যা বাসিন্দাদের কেনাকাটার প্রয়োজনীয়তা পূরণ করে। এ- ব্লক এবং সি ব্লকে বিভিন্ন চাইনিজ, ইটালিয়ান এবং জাপানিজ রেস্টুরেন্ট রয়েছে। এ ছাড়াও, যারা পরিবার এবং বন্ধু নিয়ে ভালো একটা সময় কাটানোর জায়গা খুঁজছেন তাদের জন্য, এ- ব্লকে হাঁটার পথেই রয়েছে ক্যাফে এবং কফি শপ। দৈনন্দিন জীবনের প্রয়োজনীয়তা পূরণে ব্লক-ডি টি রয়েছে ''মেহেদী মার্ট'' নামে একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোর এবং একই বিল্ডিং এর উপরে রয়েছে দুটো রেস্টুরেন্ট। ঢাকার অধিকাংশ এলাকার মধ্যে বসুধারা আর/এ এলাকাটি অধিবাসীদের জন্য সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা এবং নজদারির মাধ্যমে সুরক্ষিত এবং তাদের জন্য যারা প্রতিদিন কাজের প্রয়োজনে জায়গাটির কাছাকাছি রয়েছে।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়

- এই এলাকার অধিবাসী সন্তানদের সুশিক্ষা চাহিদা পূরণের জন্য এই এলাকার মধ্যেই শীর্ষ স্থানীয় প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি গুলো রয়েছে। যেমন: নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি (এন এস ইউ), ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ (আই ইউ বিএটি) এবং ভালো স্কুল গুলোর মধ্যে অন্যতম – আই এস ডি (ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অফ ঢাকা), ভিকারুননিসা নূন স্কুল। এছাড়া ও বাবা-মায়ের তাদের বাচ্চাদের স্কুলে পড়াশোনার প্রয়োজনীয়তা পূরণে রয়েছে আরো কিছু স্কুল যেমন: প্লেপেন, হার্ডকো ইন্টারন্যাশনাল।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার হাসপাতাল এবং জরুরি চিকিৎসা সেবা

- স্বাস্থ্যগত সমস্যার জন্য, এই এলাকার অধিবাসীদের দেশের অন্যতম সেরা হাসপাতাল, অ্যাপোলো হাসপাতাল প্রদান করছে সেরা ডাক্তার এবং চিকিৎসা সুবিধা। চিকিৎসা এবং চিকিৎসায় সেরে ওঠার জন্য প্রয়োজনীয় ঔষধের পর্যাপ্ততা রয়েছে প্রতিবেশী হাসপাতালের কাছের দোকান গুলোতে।